a
Sorry, no posts matched your criteria.
Image Alt
 • চুলের যত্ন  • যে সাতটি ক্লাসিক হেয়ারস্টাইল এখনো অমলিন

যে সাতটি ক্লাসিক হেয়ারস্টাইল এখনো অমলিন

আগে যেমন জনপ্রিয় ছিল, সময়ের বিবর্তনে আবারও রেট্রো স্টাইল জনপ্রিয় হচ্ছে এখন। ফ্রেঞ্চ ক্রপ, বাজ কাট, স্লিক ব্যাক এসব এমন কিছু হেয়ারস্টাইল যা এখনো চিরসবুজ।

ফ্রেঞ্চ ক্রপ
ফ্রেঞ্চ ক্রপ ট্রেন্ডি পুরুষদের জন্য আদর্শ লো মেইনটেইন্যান্স হেয়ারকাট হতে পারে। এটা সব পুরুষের সঙ্গেই মানিয়ে যেতে পারে, কিন্তু বিশেষ করে যাদের মাথার ওপরের দিকে চুল একটু পাতলা তাদের জন্য ভালো। মিলিটারি সিজার কাটও এটার আরেকটা ধরন। ছোট চুলের জন্য এই হেয়ারস্টাইল খুব ভালো এবং ম্যানেজ করাও সহজ। ফ্রেঞ্চ ক্রপ বিশেষ করে সেই সব পুরুষদের জন্য সুবিধার যারা ক্রুইফ বা পম্পাডোরের সময় পায় না। এটার আরেকটা ভালো দিক হচ্ছে, যে কোনো হেয়ারস্টাইল প্রোডাক্টের সাথে এটা ব্যবহার করা যায়। একটু স্প্রে করে দিলেই এই স্টাইলটা একদম ন্যাচারাল মনে হবে। শুধু খেয়াল রাখতে হবে এই স্টাইলে তিন সপ্তাহ পর আপনার চুল একটু ছাঁটা লাগবে।

দ্য বাজ কাট

বাজ কাট আরেকটি ক্লাসিক টাইমলেস কাট। তবে মনে রাখতে হবে আপনার মুখের সঙ্গে যেন এটি মানিয়ে যায়। বাজকাট দেওয়া হয় ইলেকট্রিক ক্লিপারের সাহায্যে, মাথার ওপরে সব চুল যেন একই ‘বাজে’ থাকে। লো, মিড আর হাই ফেইডের কম্বিনেশনে এটা দুই সাইডেই হতে পারে। বাজ কাট ফেইডই সবচেয়ে পপুলার। এখানেও চুল ছোট রাখাটাই আসল ব্যাপার।

দ্য স্লিক ব্যাক

সবচেয়ে পুরনো হেয়ারস্টাইলগুলোর একটি হিসেবে স্লিক ব্যাক অনেক বছর ধরেই বিবর্তিত হয়ে আসছে। একটি গ্লসি স্লিক ব্যাক কাট সম্ভবত সবচেয়ে ফরম্যাল ও ক্লাসিক লুকগুলোর একটি। আর আপনি যদি এটার সাথে একটু আধুনিক ছোঁয়া আনতে চান তাহলে চুল বড় রেখে আরেকটু ফেড কাট দিতে পারেন।

দ্য সাইড পার্টিং

স্লিক ব্যাকের বিকল্প হিসেবে এই হেয়ারস্টাইলের আবেদন অনেক দিন থেকেই। সিম্পল শর্ট ব্যাক অ্যান্ড সাইড এটার অন্যতম বৈশিষ্ট্য, সেজন্য যে কোনো ধরনের চুলের সঙ্গেই এটা মানিয়ে যায়। আবার চুল বেশি বড় হলে আর ওপরের দিকে পাতলা হলে এটার কম্ব ওভারের দরকার হয়। এর নামটাই বলে দিচ্ছে সাইড পার্ট হেয়ারকাটের জন্য সাইডটা বেশি জরুরি। টপ আর সাইড ট্র্যাডিশনালভাবে কাটা হয় যেন একটা অল অ্যারাউন্ড টাইমলেস লুক আসে।

দ্য কুইফ

কুইফ এমন একটি আইকনিক হেয়ারস্টাইল যেটা সব বয়সের, ফেস শেপ এবং পার্সোনাল স্টাইলের সাথে মানিয়ে যায়। কুইফের আরেকটি বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এটা ফ্যাশন জগতে প্রচলিত হলেও প্রতিদিন আপনি এটা দেখবেন না। কারণ এটা যতটা বেশি ফ্যাশন স্টাইল, ততটা ক্যাজুয়াল স্টাইল নয়।

শোল্ডার লেংথ কাট

ক্লাসিক এবং রিফাইন্ড কাট হিসেবে অনেক দিন ধরেই প্রচলিত এটি। এখানে সবচেয়ে কঠিন ব্যাপারটা হচ্ছে আপনার চুলটা একটু বেশি গজাতে দিতে হবে। অনেক সময় আপনি হয়ত সব চুল কেটে ফেলতে চাইবেন, কিন্তু যে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে একটা গোল সেট করুন এবং চিন্তা করুন এই স্টাইলটা আপনি আদৌ রাখতে চান কিনা।

টেক্সচারড কাট উইথ ফ্রিঞ্জ

এই স্টাইলের জন্যও আপনার চুলের পরিমাণ বেশ ভালো থাকতে হবে। কারণ পাতলা চুলের চেয়ে এই কাট ঘন চুলের জন্য বেশি উপযোগী। যাদের ডাবল ক্রাউন আছে তারা এই স্টাইলটা ভেবে দেখতে পারেন।

POST A COMMENT