a
Sorry, no posts matched your criteria.
Image Alt
 • ত্বকের যত্ন  • পুরুষদের শরীরের লোমের যত্ন নিন এই ছয়টি উপায়ে

পুরুষদের শরীরের লোমের যত্ন নিন এই ছয়টি উপায়ে

পুরুষদের শরীরের যত্নে নেওয়ার আরেকটি প্রচলিত নাম আছে, ‘ম্যানস্কেপিং’। ‘ম্যান’ আর ‘ল্যান্ডস্কেপিং’ থেকে একটু মজা করেই এসেছে নামটা। ওয়াক্সিং, প্লাকিং, শেভিংয়ের মতো উপায় অনুসরণ করে কীভাবে ছেলেদের শরীর থেকে লোম বা দাড়ি ফেলে দেওয়া হয় তা থেকেই এসেছে এই নাম। সহজে চুল আঁচড়ানো থেকে পুরো শরীরের যত্ন, সবকিছুই ম্যানস্কেপিং-এর মধ্যে পড়ে। এখানে উপায় আছে অনেকগুলি, এ থেকে আপনি আপনার পছন্দসই ধরনটা বেছে নিতে পারেন।

চোখের ভ্রু

মুখের দিকে তাকালে প্রথমেই যে কয়েকটি দিকে চোখ যায় তার মধ্যে ভ্রু একটি। আপনি যখন ভ্রুর যত্ন নেবেন, তখন খেয়াল রাখতে হবে সেটা এমনভাবে করতে হবে যেন বেশি পাতলা না করা হয়ে যায়। সমান না হলে আপনি কাঁচি ব্যবহার করতে পারেন। আর ভ্রুর পাশে যদি স্বাভাবিক চুলের বাইরেও কিছু গজায়, তার জন্য টুইজার ব্যবহার করতে পারেন। গ্রুমিং ব্লগ ‘এইপ টু জেন্টেলমেনের’ সম্পাদক ক্রিস বিস্টাল যেমন বলেছেন ‘ভ্রু প্লাক করার মূল ব্যাপারটা হচ্ছে পুরুষালি ভাবটা ধরে রেখে কিছু অংশ ছেঁটে ফেলা, আর কোনো বাড়তি চুল থাকলে কেটে ফেলা। ঠিকঠাক করা হলে আপনাকে সুন্দর দেখাবে, বয়সও কমে যাবে অনেকটা।’

কান

কানের বাইরের অংশের জন্য টুইজারস বেশি কার্যকর। দুই দিকেই ভোঁতা, এমন একটা ভালো টুইজার দিয়ে কানের পাশের চুলগুলো প্লাক করতে পারেন। কাঁচি বা ইলেক্ট্রিক ট্রিমারের চেয়ে এই ক্ষেত্রে টুইজারস অনেক বেশি কার্যকর। এটা শুধু চুল ছেঁটে ফেলার ক্ষেত্রে যে নিখুঁত তা-ই নয়, গোড়া থেকেও চুল তুলে ফেলে। যার মানে চুল ওই জায়গায় আবার গজাতেও সময় লাগে। কানের ভেতরের দিকের চুল কাটার জন্য বিশেষ কিছু কাঁচি আছে, সেগুলোই ব্যবহার করা উচিত।

নাক

নাক শরীরে বাতাস ঢোকার অন্যতম দরজা। সেজন্য নাকের ভেতর দিকে রোগজীবাণু বের করার জন্যও নিয়মিত নাকের যত্ন দরকার। নাকের চুল ছোট রাখা সাধারণ ভদ্রতা। ভোঁতা কাঁচি দিয়ে কাজটা আপনি করতে পারেন। প্লাকিংটা না করাই ভালো, কারণ এর ফলে রক্ত বের হয়ে সংক্রমণ হয়ে যেতে পারে।

বুক

কেউ কেউ বুকের লোম যেরকম আছে সেরকম রেখে দিতেই পছন্দ করে। আবার কেউ কেউ সেটা ছাঁটে। আপনি যদি আপনার বুকের লোক ফেলে দিতে চান, তাহলে ইলেকট্রিক ট্রিমার ব্যবহার করতে পারেন। আপনি ট্রিমারের গার্ডটা ঠিকমতো অ্যাডজাস্ট করেছেন কি না, খেয়াল রাখুন। আর যদি পুরোপুরি ফেলে দিতে চান, তাহলে শেভিং ক্রিম আর ম্যানুয়াল রেজর ব্যবহার করার কথা ভাবতে পারেন।

বগল
আপনি যদি পুরোপুরি হিপ্পি সাজতে না চান, তাহলে আপনার নিয়মিত বগল পরিষ্কার করা উচিত। পুরোপুরি তুলে ফেলার জন্য নতুন রেজর ব্যবহার করতে পারেন। অথবা একটি ইলেক্ট্রিক ট্রিমার অন্তত গার্ড দুইতে রেখে কাজটা করতে পারেন।

হাত ও পা

হাত ও পা পুরোপুরি পরিষ্কার রাখার জন্য আপনি একটি ওয়াক্সিং বা শেভিংয়ের কথা ভাবতে পারেন। হাত আর পায়ে কিছু লোম থাকলে সেটা স্বাভাবিক লাগে। শুধু খেয়াল রাখতে হবে, এটার পরিমাণ যাতে বেশি না হয়। দরকার হলে ট্রিমার এক বা দুই নম্বর গার্ড দিয়ে ব্যবহার করে কাজটা করতে পারেন।

পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন মানুষকে সবাই পছন্দ করে। আর এই কাজগুলো করলে আপনাকে একদম নিপাট একজন ভদ্রলোকের মতো দেখাতে পারে, হয়ে যেতে পারেন একদম ধোপদুরস্ত।

POST A COMMENT