a
Sorry, no posts matched your criteria.
Image Alt
 • দাঁড়ি  • লকডাউনের মধ্যে কীভাবে দাড়ি রাখবেন

লকডাউনের মধ্যে কীভাবে দাড়ি রাখবেন

এই লেখা পড়ার সময় অনেক দিন থেকেই হয়তো আপনি ঘরেই আছেন। বাসায় থেকে আপনাকে কাজও করতে হচ্ছে। আপনাকে কখনো ভিডিও কলও নিতে হচ্ছে, যেখানে খারাপ দেখালেও আবার সমস্যা। লকডাউনে বড় একটা প্রশ্ন, আপনি দাড়ি রাখবেন নাকি রাখবেন না? আপনি যদি ঠিক করেন দাড়ি রাখবেন তাহলে প্রিয় বার্বারশপকে মিস করতে পারেন হয়তো। আবার একই সঙ্গে, এখন আপনার বাসায় নিজের যত্ন নেওয়া ছাড়া উপায়ও নেই। সেজন্য সব দুশ্চিন্তা ঝেড়ে নিজের দাড়ির যত্ন নেওয়া শুরু করুন।

সময় নিন যথেষ্ট
সবার আগে ঠিক করতে হবে, দাড়ি কি আপনাকে মানায় নাকি না? যত্ন না নেওয়া দাড়ির চেয়ে ক্লিন শেভড থাকাই ভালো। সেজন্য যদি আপনার মুখে ঠিকঠাক দাড়ি না গজায়, তাহলে রাখার দরকারই নেই।
এখন আপনি যদি ঠিক করেন দাড়ি রাখবেন তাহলে সেজন্য আপনাকে সময় দিতে হবে। পুরুষদের মুখে গড়ে মাসে হাফ ইঞ্চি দাড়ি গজায়। সেজন্য আপনাকে হিসেব করতে হবে দাড়ি গজাতে কত সময় লাগবে। বাসার বাইরে বের হচ্ছেন না যেহেতু, আপনি দাড়ি গজানোর জন্য কিছু সময় নিতে পারেন।
আর এটাও মাথায় রাখতে হবে, প্রথম ১-২ সপ্তাহে একটু চুলকানি থাকতে হবে। এই চুলকানির জন্য অনেকে দাড়ি রাখতে পারে না। কিন্তু আপনি যদি ঠিক করেন রাকবেনই, তাহলে এটা বড় সমস্যা হওয়ার কথা না। একবার দাড়ি একটু নরম হলে এটা ম্যানেজ করাও অনেক সহজ হয়ে যাবে আপনার জন্য।

ইট, প্রে অ্যান্ড লাভ

গবেষণায় দেখা গেছে, দাড়ি গজানোর একটা কারণ হচ্ছে পুরুষদের টেস্টোটেরন হরমোন। আপনি যদি সবকিছু নিয়ে অনেক বেশি উদ্বিগ্ন আর দুশ্চিন্তায় থাকেন, তাহলে সেটা আপনার দাড়ির ওপরও বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারেন। সেজন্য সব দুশ্চিন্তা ঝেড়ে ফেলুন। দরকার হলে ধ্যান করুন, পরিবারের সঙ্গে সুন্দর সময় কাটান। স্বাস্থ্যকর খাবার খান, যত বেশি সম্ভব পানি খান। শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ থাকলেই কেবল আপনার দাড়িটা সুন্দর হতে পারে।

দাড়ি পরিপাটি রাখুন

যেহেতু আপনাকে নিজের দাড়ির যত্ন নিজেকেই নিতে হবে, সেজন্য এটা পরিপাটি করে রাখতে হবে আপনাকেই। বাসায় দাড়ি ঠিক রাখা কঠিন কিছু নয়, তবে কিছু দাড়ির জন্য আলাদা যত্ন দরকার। আপনি যখন বাসায় দাড়ি কাটছেন, নিশ্চিত করুন এটা যেন প্যাচি বা খাপছাড়া না থাকে। দাড়ির জন্য আলাদা শ্যাম্পু ব্যবহার করার চেষ্টা করুন, কারণ মাথার ত্বকের চেয়ে মুখের ত্বকের ধরন আলাদা। কন্ডিশনার ব্যবহার করুন। দাড়ি কাটার আগে এই ব্যাপারগুলো মাথায় রাখা উচিত। এমন একটা ব্রাশ ব্যবহার করুন যেটা আপনার দাড়ির সঙ্গে যায় এবং ধীরে ধীরে সেটা দিয়ে দাড়ি ঠিক করুন।

নেকলাইন খেয়াল করে ট্রিম করুন

বড় দাড়ি থাকলে আপনাকে ক্লিপার ব্যবহার করতে হবে। যদি আপনি এটা প্রথমবারের মতো ব্যবহার করেন, তাহলে আপনার দাড়ি নিয়ে একটু ভজঘট পাকিয়ে ফেলতে পারেন। লন্ডনের বিখ্যাত বার্বারশপ জো অ্যান্ড কো এর জো মিলস বলেছেন, ‘আপনার টপ লিপ এরিয়া ট্রিম করুন, এবং ত্বকের জ্বালাপোড়া কমানোর জন্য এটা ময়েশ্চারাইজড রাখুন।’ আরেকটা গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হচ্ছে নেকলাইন। আপনি যদি জ-লাইনের খুব কাছে শেভ করেন, তাহলে আপনার ডাবল চিন থাকতে পারে। আর আপনি যদি নেকের নিচে দাড়ি গজাতে দেন, সেটা দেখতে ভালো নাও লাগতে পারে। সেজন্য দাড়ি ট্রিম করার সময় নেকলাইন ঠিক রাখুন।

POST A COMMENT