a
Sorry, no posts matched your criteria.
Image Alt
 • গ্রুমিং  • অনুষ্ঠান  • ছেলেদের গ্রুমিংঃ এখন এবং তখন

ছেলেদের গ্রুমিংঃ এখন এবং তখন

আশির দশকের কথা মনে আছে যখন গ্রুমিং ছিল খুব সহজ এবং সাধারণ? আসলে ভিক্টোরিয়ান পিরিয়ডের সময় থেকেই পুরুষেরা তাদের গ্রুমিং নিয়ে বেশ সচেতন হওয়া শুরু করে। এরপর থেকে ছেলেদের গ্রুমিংয়ে বড় একটা পরিবর্তন আসে। গত ১০ বছরে আমরা এমন একটা জায়গায় এসে পৌঁছেছি যখন গ্রুমিং আবারও গ্রহণযোগ্য হওয়া হুরু করেছে। এখন ছেলেদের গ্রুমিং, স্টাইলিং এবং স্কাল্পটিং অনেক জনপ্রিয়। এখন পুরুষেরা স্কিনকেয়ার নিয়ে অনেক সচেতন।

হেয়ার স্টাইল

একটা সময় রাজা বাদশারা বড় দাড়ি রাখা পছন্দ করতেন। রক এবং মেটাল কালচার চালুর পর এখন লম্বা চুল রাখা ফ্যাশনের অঙ্গ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ২০১০ সালের পর এসে দাড়ি এখন অনেক বেশি জনপ্রয়। অনেক ক্লাসিক হেয়ারকাট এখন আধুনিক হয়েছে।

আপনি যদি চুলকে রেট্রো একটা লুক দিতে চান, তাহলে বেশ কিছু উপায় আছে। ট্র্যাডিশনাল পুরুষদের জন্য গ্রুমিং মানে প্রতি দুই মাস পর পর বারবারের কাছে যাওয়া। তবে এখন পুরুষেরা বলছে এটা যথেষ্ট নয়, হাইজিন এবং গ্রুমিং সবদিক চিন্তা করেই। প্রতি মাসে একবার চুল কাটতেই হয় এখন। আর চুল কাটার আগে হেয়ার স্টাইলিস্টের সাথে কথা বলে নেওয়াও ভালো। আপনার চুলের জন্য ভালো কোন প্রোডাক্ট হবে? আপনার মুখের শেপের সঙ্গে কোন স্টাইলটা বেশি যাবে? আগে এগুলো নিয়ে এত বেশি কথা হতো না। তবে আধুনিক পুরুষেরা নিজেদের হেয়ারস্টাইল নিয়ে অনেক বেশি সচেতন।

স্কিনকেয়ার

এটা এখন প্রমাণিত ছেলেরা তাদের ত্বকের যত্ন নেওয়া শুরু করেছে অনেক বেশি। আগের চেয়ে ছেলেদের এখন অনেক বেশি টাফ। কারণ ছেলেদের এখন বাইরের রুক্ষ আবহাওয়ায় বেশি কাজ করতে হয়। সেজন্য বাইরের বিভিন্ন বস্তুর সংস্পর্শেও আসে বেশি। এখন ত্বক তাই আগের চেয়ে বেশি স্পর্শকাতর। এখন অনেক ভালো ফেস ওয়াশ, ফেস ময়েশ্চারাইজার, অ্যান্টি এজিং ক্রিম এসব সহজেই বাজারে পাওয়া যায়। এগুলো শেভিংয়ের পর ত্বককে কোমল করে, ত্বককে অনেক বেশি হাইড্রেটেড ও সুস্থ রাখে। স্যালুন ছেলেদের জন্য ফেসিয়াল, ম্যানিকিউর, পেডিউকিউর, থ্রেডিং এসব থাকে। আগের মতো ছেলেরা শুধু চুল কাটার জন্যই সেলুনে আসে না। তারা অনেক বেশি যত্তন চায়। তারা চায় তাদের জন্য বাকিদের চেয়ে আলাদা লাগুক।

ফেসিয়াল হেয়ার

আগে মানুষ দাড়ির খুব বেশি পরীক্ষা নিরীক্ষা করত না। সকালে ওয়েট শেভ করেই কাজ সেরে ফেলত অনেকে। এটা হয়তো আধুনিক স্কাল্পটিংয়ের চেয়ে বেশি হাইজেনিক। তবে এখন ছেলেরা দাড়ি নিয়ে অনেক বেশি পরীক্ষা নিরীক্ষা করছে। তারা জানে, দাড়ি তাদের মুখের আদল বদলে দিতে পা্রে এবং একেক ধরনের মুখের সাথে একেক ধরনের দাড়ি মানায়। গোটি, গোঁফ, স্ট্যাবল, লংগার বিয়ার্ড এরকম বেশ কিছু ট্রেন্ড তারা পরখ করে দেখেছে, ভুরুও ট্রিম করছে ও শেপে রাখছে।

হেয়ার কালার

হেয়ার কালার আরেকটা দিক যেখানে বিপ্লব ঘটে গেছে। এটা নিয়ে অনেক রকম পরীক্ষা নিরীক্ষাও হয়েছে। ছেলেরা অনেক রকম হেয়ার কালার ট্রাই করে দেখছে, গতানুগতিকতার বাইরে ভাবছে। এখন ছেলেরা স্যালুনে গিয়ে হাইলাইট, লোলাইটস, ব্লিচিং এরকম অনেক কিছু ট্রাই করে দেখছে। চুলে তারা বিভিন্ন রকম শেড আর প্যাস্টেলও আনছে।

POST A COMMENT