a
Sorry, no posts matched your criteria.
Image Alt
 • ত্বকের যত্ন  • লকডাউনের সময় যেভাবে ত্বকের যত্ন নেবেন

লকডাউনের সময় যেভাবে ত্বকের যত্ন নেবেন

ত্বক এমন একটা জিনিস যেটা হয়তো আপনি প্রতিদিনকার ব্যস্ততার মধ্যে ওভাবে নজর দেওয়ার সময় পান না। তবে সোশ্যাল ডিসট্যান্সিংয়ের এই যুগে আপনাকে লম্বা একটা সময় বাসায় থাকতে হচ্ছে। ত্বকের যত্ন নেওয়ার এটাই আদর্শ সময়। আপনি যখন লকডাউনে অনেক বেশি ফিজিক্যালি আর মেন্টালি ফিট থাকছেন, স্কিনকেয়ার এড়িয়ে যাওয়া মোটেই উচিত নয়। সেজন্য আপনার কিছু টিপস শুধু মনে রাখতে হবে।

নিজেকে হাইড্রেট রাখুন

বাসায় থাকলে আপনি হয়তো সূর্যের উত্তাপ টের পাবেন না। তবে গরমের দিনে আপনাকে অনেক পানি পান করতে হবেই। এটা হচ্ছে স্বাস্থ্যোজ্জ্বল ত্বকের প্রথম ও প্রধান নিয়ম। নিজেকে হাইড্রেটেড রাখুন, যত বেশি সম্ভব পানি পান করুন। তরমুজ সেজন্য ভালো একটা চয়েস। যত বেশি সম্ভব তরমুজ খান। স্বাস্থ্যকর খাবার খান, বেশি মুখরোচক খাবার ঘন ঘন খেয়ে পেট ভরিয়ে ফেলবেন না। আপনার শরীর ভালো থাকলে ত্বকেও সেটার প্রতিফলন থাকবে।

স্যানিটাইজ করুন নিয়মিত
লকডাউনে আপনার সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে হাত ঠিকঠাক রাখা। আপনাকে নিয়মিত হাত স্যানিটাইজ করতে হচ্ছে সাবান পানি বা অন্য কিছু দিয়ে। স্বাভাবিকভাবেই আপনার হাত আরও বেশি শুকিয়ে যাচ্ছে এবং সেজন্য ত্বকের কিছু সমস্যা হতে পারে। সেজন্য হাত স্যানিটাজ করার সাথে সাথে ময়েশ্চারাইজও করতে হবে। সেজন্য নিয়মিত হাত ধোয়ার পাশাপাশি হ্যান্ড ক্রিমও ব্যবহার করা উচিত।

এক্সফোলিয়েট করুন নিয়মিত

হয়তো নিয়মিত বাসা থেকে আপনার এখন বের হওয়া লাগছে না। তারপরও গরমের সময় আপনি প্রচুর ঘামতে পারেন। আর আপনার মুখ ময়লার সংস্পর্শে আসতে পারে। এক্সফোলিয়েশন মুখ থেকে ময়লা তুলে ফেলে শুধু তা-ই নয়, বরং বিভিন্ন পণ্য ত্বকে আরও ভালোভাবে মিশে যেতে সাহায্য করে। আপনি বেশ কিছু ডিওয়াইআই প্রোডাক্ট বাসায় ব্যবহার করতে পারেন। আপনার ডিওডেরেন্ট ও বডি ওয়াশের পাশাপাশি ফেস স্ক্রাবও ব্যবহার করতে পারেন। এটা আপনার মুখ থেকে শুধু ডিপ ক্লিন করে ময়লাই পরিষ্কার করবে না, ত্বককে একই সঙ্গে ময়েশ্চারও করবে।

শাওয়ারের সময় শেভ করুন

আপনি যদি দাড়ি নিয়ে স্বচ্ছন্দ না হোন, তাহলে কেটে ফেলার কথা ভাবতে পারেন। এখন যেহেতু আপনার বার্বারের ওপর নির্ভর করতে পারছেন না, কাজটা আপনাকেই করতে হবে। আপনি গোসলের সময় শেভ করার কথা ভাবতে পারেন, কারণ তখন বাষ্প আপনার দাড়িকে নরম করে এবং ময়েশ্চারের জন্য ত্বকে জ্বালাপোড়া কম হয়। আর গোসলের সময় শেভ করলে আপনার স্কিন আরও বেশি আর্দ্র থাকে এবং শেভ করাও তখন অনেক সহজ হয়।

এসপিএফের দিকে খেয়াল রাখুন

এসপিএফ বা সান প্রোটেক্টিং ফ্যাক্টর এমন একটা ব্যাপার যেটা লকডাউনের সময় আপনি এড়িয়ে যেতে পারবেন না। আপনার মনে হতে পারে, এই সময় আপনার তো বাইরে বের হওয়া লাগছে না। তাহলে আপনার সানস্ক্রিন বা ফেস ময়েশ্চারাইজারের দরকার হবে কেন? কিন্তু এসপিএফের জন্য নেওয়া দরকার আপনার। হারপার বাজারের ডিজিট্যাল বিউটি ডিরেক্টর ব্রিজেট মার্চের মতে, আপনি যদি জানালার পাশেও বসে থাকেন তাহলে সরাসরি সূর্যের আলো আপনার ত্বকের প্রিম্যাচিউর অ্যাজিং-এর জন্য দায়ী হতে পারে। সেজন্য ভালো একটা ফেস ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা উচিত আপনার।

POST A COMMENT